অনলাইন জব ২০২২: ঘরে বসে ১৩টি সেরা জব করুন

বর্তমান সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে অনলাইন প্লাটফর্মটি মানুষের জীবনের সাথে জড়িয়ে পড়েছে। আর এই কারনে অনলাইন হয়েছে টাকা ইনকাম করার বিশাল বড় বাজার।

অনলাইনে আয় করার অনেক পদ্ধতি রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম সেরা পদ্ধতি হচ্ছে অনলাইন আয় বা জব। অনলাইনে অনেক জব রয়েছে যে কাজগুলি আপনি পার্টটাইম বা ফুলটাইম করার মাধ্যমে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন।

আজকের এই অনলাইন ইনকাম এর পোস্ট এ কিভাবে আপনি কিভাবে ঘরে বসে অনলাইন জব করে টাকা আয় করবেন এই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। তাই আপনারা এই পোস্ট টি মনোযোগ সহকারে করুন এই পোস্টটি পড়লে আপনারা ঘরে বসে কিভাবে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করা যায় তা আপনারা জানতে পারবেন।

সেই সাথে কয়েকটি অনলাইন জব সাইট ও এই পোষ্টের ভেতরে দিয়ে দেব, যেগুলিতে গিয়ে আপনি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে আপনার দক্ষতা অনুযায়ী কাজ করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন জব কি? (Online Job)

ঘরে বসে এ কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল, বা অন্যান্য ডিভাইসের মাধ্যমে কোন কোম্পানি বা কোন ব্যক্তির কাজ করাকে অনলাইন জব বলে।

অনেকেই গুগলে অনলাইন জব সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সার্চ করতেছে। যেমন:

  • মোবাইলে অনলাইন জব করা যাবে কি?
  • কিভাবে অনলাইন জব শুরু করবো?
  • অনলাইন জব করার উপায়।
  • মেয়েদের জন্য অনলাইন জব আছে কি?
  • অনলাইন জব কিভাবে করব?, ইত্যাদি

উপরের এই সকল প্রশ্ন সহ আরও বিভিন্ন প্রশ্ন নিয়ে আমরা এই পোস্টে আলোচনা করব এবং সেই সাথে আপনাকে দিকনির্দেশনা দিব এই কাজগুলোর ভিতরে কোন কাজগুলো করলে আপনি ভালো পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন এবং নিজের ক্যারিয়ার অনলাইনে দাঁড় করাতে পারবেন।

আরও দেখুন..

বাংলা আর্টিকেল লিখে ইনকাম | বিকাশ, রকেট, শিওর ক্যাশ, নগদ, মোবাইল রিচার্জ ইত্যাদি বিস্তারিত এখানে

ইউটিউব থেকে অনলাইনে আয় করতে গেলে যেগুলো বিষয় জানা প্রয়োজন

google AdSense কি [ গুগল এডসেন্স থেকে কিভাবে আয় করবেন ]

অনলাইন জব করার জন্য কি কি লাগবে?

যারা অনলাইন জব করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে চায় তাদের মধ্যে এই প্রশ্নটিই অনেক কমন।

বলে রাখি, অনলাইনে জব পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই সেই কাজে দক্ষতা থাকতে হবে। বেশিরভাগ হ্মেত্রেই অনলাইন জবে সার্টিফিকেট এর কোন প্রয়োজন নেই। সার্টিফিকেট না থাকলেও আপনি কাজ পাবেন যদি আপনার দক্ষতা থাকে। এবং অনলাইনে কাজ করার মানসিকতা থাকে। তাহলে আপনি অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন জব করার জন্য আপনার যা যা প্রয়োজন হবে:

  • কম্পিউটার বা মোবাইল
  • ইন্টারনেট কানেকশন
  • কম্পিউটার সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা
  • দক্ষতা

অনলাইনে পার্ট টাইম জব

আমরা এই পোষ্টের ভেতরে অনলাইন জব গুলো শেয়ার করেছি, সেই জব গুলোর ভিতর আপনি ইচ্ছা করলে পার্ট-টাইম ও ফুল-টাইম দু ভাবেই করতে পারবেন। তবে অনলাইনে সকল জব ফুলটাইম করে কিন্তু আপনি ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন না।

চিন্তা করবেন না। এই পোস্টের ভিতরে আমরা যে অনলাইন জব উল্লেখ করেছি সেগুলো মধ্যে আপনি কোন জব ফুল-টাইম করে ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন, সেটিও আমরা উল্লেখ করে করেছি ।

মেয়েদের জন্য অনলাইন জব আছে কি?

শুধু যে অনলাইন থেকে ছেলেরা টাকা ইনকাম করতে পারে ঠিক তা নয়। অনলাইনে ছেলে মেয়ে উভয়েই জব করে টাকা আয় কারা যায়। আমরা আমাদের এই পোস্টে যে অনলাইন জব শেয়ার করেছি প্রায় প্রত্যেক গুলি কাজয়ই মেয়েরাও করে অনলাইনে টাকা আয় করতে পারবে। তাই আমাদের এই অনলাইন জব পোস্ট টি ছেলে-মেয়ে, ছাএ-ছাএী, সবার জন্যই।

সেরা ১৩টি অনলাইন জব (Online Job in Bangladesh)

আগেই বলে রাখি, আমি এই অনলাইন জবের তালিকার মধ্যে ওই সব অনলাইন জবগুলো রেখেছি, যে জব গুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার অনলাইনে ক্যারিয়ার দাড় করাতে পারবেন সুনিশ্চিত ভাবে, যদি আপনি সেই কাজে দক্ষতা অর্জন করতে পারেন। তার জন্য আমি অনলাইনের কিছু সহজ জব গুলি এই তালিকায় থেকে বাদ দিয়েছি। যে অনলাইন জবগুলো করলে হয়ত আপনার মোবাইলে ডাটার টাকা আসবে, কিন্তু আপনি ভালো পরিমান টাকা ইনকাম করতে পারবেন না।

সহজ কাজ প্রায় সবাই পারে আর যে কাজ সবাই পারে সেটার মূল্য কমই হয়, এটা আমরা সবাই জানি।

তো চলুন কথা না বাড়িয়ে আমাদের ওয়েবসাইটে সেরা অনলাইন জব ২০২২ এর তালিকা গুলো দেখি।

আমার পরিচিতি অনেকেই নিজের ঘর থেকে ব্লগিং করছে পার্ট-টাইম ও ফুল টাইম। সেখান থেকে অনেকেই ফুল টাইম করে ১ লাখের ও বেশি টাকা মাসিক ইনকাম করছে। আপনি ব্লগিং কে পার্ট-টাইম ও ফুল টাইম উভয়ই নিতে পারবেন।

আমি নিজেও ব্লগিং জবের মাধ্যমে ২০২০ সাল থেকে ভালো পরিমান টাকা ইনকাম করছি।

ব্লগিং ব্যপারটা হল আপনাকে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। সেখানে আপনাকে মানুষের প্রয়োজনীয় তথ্য শেয়ার করতে হবে। এর ফলে আপনার সাইটে অনলাইন হতে লোকের সেই আপনার শেয়ার কৃত তথ্য দেখতে আসবে।

ক্লিক করে পড়ে নিন..

ওয়েবসাইট কি? ওয়েবসাইট থাকার ১০ টি গুরুত্বপূর্ণ সুবিধাসমূহ

ওয়েবসাইট থেকে আয় করার সহজ উপায় ২০২১

যখন আপনার সাইটে প্রতিদিন ভালো পরিমান (১ থেকে ২ হাজার বা তারও বেশি) ভিজিটর আসা শুরু করবে, তখন আপনি আপনার ওয়েবসাইট মানে আপনার ব্লগে গুগল এডস্নেস, এফিলিয়েট সহ আরও বিভিন্ন অনলাইন ইনকাম পদ্ধতি ব্যবহার করে টাকা আয় করতে পারবেন।

কনটেন্ট রাইটিং হচ্ছে কোন বিষয় বস্তুকে ইউনিকভাবে লেখার মাধ্যমে উপস্থাপন করা। যেমন: ওয়েবসাইটে লেখা, পত্রিকায় লেখা, ম্যাগাজিন লেখা ইত্যাদি।

এটি একটি সৃজনশীলতার কাজ হওয়ায়, একজন কনটেন্ট রাইটার এর অনলাইন ও অফলাইন দুই জায়গায়ই ভালো চাহিদা রয়েছে।

বর্তমানে কনটেন্ট রাইটিং কাজে অনলাইনে অনেক কম্পিটিশন বেড়ে যাওয়ায়, আপনাকে অবশ্যই একজন ভাল মানের কনটেন্ট রাইটার হতে হবে।

একজন ভালো মানের কনটেন্ট রাইটার হওয়া একেবারে অসাধ্য বিষয় না। তবে আপনাকে একজন ভাল মানের কনটেন্ট রাইটার হতে হলে, আপনাকে কিছু বিষয় রপ্ত করতে হবে। যেমন:

  • বেশি বেশি রিসার্চ করা
  • সঠিকভাবে ব্যাকরণ অনুযায়ী লেখা
  • ঠিক বানানে খুব সহজ ভাবে গুছিয়ে লেখা
  • দ্রুত লেখার অভ্যাস
  • কোন বিষয় নিয়ে গবেষণা করার অভ্যাস
  • লেখার ভিতর বৈচিত্রতা নিয়ে আসা (নিজের মতো করে লেখার অভ্যাস)

একজন ভাল মানের কনটেন্ট রাইটার বিভিন্নভাবে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারে। যেমন: নিজস্ব ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে কনটেন্ট লিখে, অন্যের ওয়েবসাইটে কনটেন্ট লিখে, অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কনটেন্ট রাইটিং জব করে, আরও বিভিন্নভাবে। আবার অফলাইনে স্থানীয় ম্যাগাজিন বা পত্রিকায় লিখেও টাকা ইনকাম করা যায়।

যেমন আমি এই একটা ওয়েব সাইটের নাম বলছি সেটি হল ইনকাম সাইট এই সাইট থেকে অনেকেই রেজিস্টার করে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করে আসছে। hotnewsall.com এই ওয়েবসাইটে কিভাবে রেজিস্টার করবেন তা বিস্তারিত দেওয়া আছে ক্লিক করে আপনারা দেখে নিন?

  • কত টাকা আয় করা যাবে?
  • প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।
  • শিখতে কত দিন লাগবে?
  • ১ মাসেও সম্ভব! কিন্তু প্রচুর প্র্যাকটিস করতে হবে।
  • কিভাবে শিখব বা শুরু করব?
  • নিচে পোস্টর লিংক দেওয়া আছে।

ইন্টারনেটের এই ঝলমলে দুনিয়ায় এখন আর পড়ালেখা স্কুল-কলেজের রোমে সীমাবদ্ধ নেই। আপনি যদি একজন ভালো ছাএ বা শিহ্মক হোন এবং আপনার টিউশনি করানো দরকার কিন্তু তার জন্য ছাএ-ছাএী পাচ্ছেন না। অনলাইনে আপনি টিউশনি জব করে আপনার দহ্মতা অনুযায়ী টাকা আয় করতে পারবেন।

দহ্মতার কথা এজন্য উল্লেখ্য করলাম যে, অনেকেই অনলাইনে শুধুমাএ টিউশনি করে মাসে ১ লহ্ম বা তারও বেশি টাকা ইনকাম করছে। আবারও অনেকেই নিজের পড়ালেখার টাকার যোগানি দিতে পারেনা।

বাংলাদেশের কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে গিয়ে আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা অনুযায়ী খুব সহজে আপনার অনলাইন টিউশনি জব পেতে পারেন। নিচে আমি কয়েকটি বাংলাদেশের জনপ্রিয় অনলাইন টিউশন পাওয়ার ওয়েবসাইট লিংক দিয়ে দিচ্ছি।

http://bdtutors.com

https://bdtutor24.com

http://www.mytutor.com.bd

https://deshtutor.com

এছাড়াও বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে আপনিও অনলাইন টিউশন জব খুঁজে পেতে পারেন।

ওয়েব ডিজাইন হচ্ছে ওয়েবসাইট এর বাহ্যিক রূপ। মানে একটি ওয়েবসাইট দেখতে কেমন হবে সেটি হচ্ছে ওয়েব ডিজাইন। যে ওয়েবসাইট ডিজাইন করে তাকে ওয়েব ডিজাইনার বলে।

আর একটি ওয়েবসাইটকে ব্যবহার উপযোগী বা ফাংশনাল করার জন্য যে কাজ করা হয় তাকে ওয়েব ডেভলপমেন্ট বলে। আর যে এ কাজ করে তাকে ওয়েব ডেভলপার বলে।

ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট এর অনলাইনে ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। ভালো মানের একজন ওয়েব ডিজাইনার বা ডেভেলপার হতে পারলে সফলতা নিয়ে চিন্তা করতে হবে না।

তবে একজন ভালো মানের ওয়েব ডিজাইনার বা ডেভলপার হওয়া মুখের কথা নয় আবারও অসাধ্য না কোন বিষয় নয়। এর জন্য আপনাকে প্রচুর সময় দিয়ে ধৈর্য ধরে কাজ করে যেতে হবে।

আগেই বলেছি, একজন ওয়েব ডিজাইনার বা ডেভলপারের চাহিদা ব্যাপক। আপনি যদি একজন ওয়েবডিজাইনার বা ডেভলপার হন তাহলে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস সহ, ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট সম্পর্কিত বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ থেকে কাজ সংগ্রহ করতে পারবেন।

আমি নিচে কয়েকটি ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট অনলাইন জব পাওয়ার লিংক দিয়ে দিচ্ছি।

https://www.upwork.com

https://www.freelancer.com

https://www.fiverr.com

https://www.guru.com

Webdesign and Development

  • কত টাকা আয় করা যাবে?
  • প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।
  • শিখতে কত দিন লাগবে?
  • কমপক্ষে ০৬ মাস তো লাগবে।
  • শিখব কিভাবে?
  • আমাদের ওয়েবসাইটে পোস্ট রয়েছে।

গ্রাফিক্স হল চিএ আর ডিজাইন হল অংকন করা। অর্থাৎ নিজের মত করে চিত্রের মাধ্যমে কোন কিছুকে উপস্থাপন করা কে গ্রাফিক্স ডিজাইন বলে। আমাদের ওয়েবসাইটের লগো, পোস্টের ভিতরে ছবি গ্রাফিক্স ডিজাইনের ‍উদাহারন।

বর্তমান সময়ে ফ্রিল্যান্সিংয়ের অন্যতম সেরা কাজ হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন। ভালো ভাবে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে পারলে অনলাইনে থেকে হাজার ডলার আয় করা পান্তাভাত বিষয়। একজন দহ্ম গ্রাফিক্স ডিজাইনারের যে শুধু অনলাইন থেকেই ইনকমা করতে পারবে, বিষয়টা কিন্তু তা নয়। অফলাইনেও একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের অনেক কাজ থাকে করার মত।

আমি আগেই বলেছি, গ্রাফিক্স ডিজাইন হচ্ছে ফ্রীলান্সিং অন্যতম সেরা কাজ। এবং এটির অনলাইনে ও অফলাইনে দু-জায়গায় ব্যাপক পরিমাণে চাহিদা রয়েছে। সকল ফ্রীলান্সিং ওয়েবসাইটে গ্রাফিক্স ডিজাইন জব পোস্ট ট্রেন্ডএ থাকে। তাই সকল ফ্রীলান্সিং ওয়েবসাইটে গ্রাফিক্স ডিজাইন জব খুব সহজে পাওয়া যায়। গ্রাফিক্স ডিজাইন জব পাওয়া কিছু ওয়েবসাইট হচ্ছে:

https://www.upwork.com

https://www.freelancer.com

https://www.toptal.com

https://www.fiverr.com

https://www.guru.com

https://www.peopleperhour.com

অনলাইনে কোন কিছুর মার্কেটিং করাকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলে। সেটি হতে পারে, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (এসইও) ইউটিউব মার্কেটিং, ফেসবুক মার্কেটিং, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, ইত্যাদি।

এই ডিজিটাল সময়ে ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রয়োজনীয়তা বলে শেষ করা যাবে না। ডিজিটাল মার্কেটিং এর যেকোনো একটি কাজ শিখে এই কাজ দ্বারা সার্ভিস প্রদান করার মাধ্যমে ভালো পরিমান টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

ডিজিটাল মার্কেটিং কাজ অনলাইন মার্কেটপ্লেসে প্রচুর পরিমানে পাওয়া যায়। নিচে আমি কয়েকটি ডিজিটাল মার্কেটিং জব পাওয়ার জনপ্রিয় ওয়েবসােইট উল্লেখ্য করে দিচ্ছি..

  • কত টাকা আয় করা যাবে?
  • ভালো পরিমান টাকা আয় সম্ভাবনা রয়েছে।
  • ইনকাম শুরু হতে কত দিন লাগতে পারে
  • কমপহ্মে ৬ মাসতো লাগবেই! কিন্তু প্রচুর পরিশ্রম করতে হবে।
  • কিভাবে শিখব বা শুরু করব?
  • গুগলে ও ইউটিউবে ঘাটা-ঘাটি করতে হবে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং ব্যাপারটা হচ্ছে, কোন কোম্পানী বা প্রতিষ্ঠানের পণ্য বা সার্ভিস বিক্রি করে দিয়ে, বিক্রির জন্য সেই পণ্য বা সার্ভিস এর মূল্য থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন নেয়া।

আরো পড়ুন..

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম করার কয়েক টি সহজ উপায় | Dailytk.com

অনলাইনে ইনকাম ২০২১: আয় করার সেরা উপায়

ফেসবুক থেকে আয় ২০২১: ফেসবুকে কিভাবে ইনকাম করা যায়

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জনপ্রিয় পদ্ধতির ভেতর একটি। আমার পরিচিত অনেকেই এফিলিয়েট মার্কেটিং করে ভালো পরিমান টাকা ইনকাম করছে। এবং তারা অনেকেই এটিকে ফুল-টাইম জব হিসেবে বেছে নিয়েছে। আপনিও এফিলিয়েট মার্কেটিং কে ফুল-টাইম বা পার্ট-টাইম জব হিসাবে নিতে পারবেন।

এফিলিয়েট মার্কেটিং বিভিন্ন ভাবে করা যায় তার মধ্যে জনপ্রিয় মাধ্যম গুলি হচ্ছে নিজস্ব ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল, ফেইসবুক।

প্রথমে আপনাকে এফি্লিয়েট প্রোগাম ওয়েবসাইটে গিয়ে রেজিষ্টেশন করতে হবে। তারপর আপনি যে পণ্য বা সার্ভিস বিক্রি করতে চান তার জন্য তার এফিলিয়েট লিংক আপনার একাউন্ট থেকে তৈরি করতে হবে। তারপর আপনার ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল, ফেইসবুক বা অন্য কিছুতে লিংক শেয়ার করে, সেই লিংক শেয়ার করার মাধ্যমে যে বিক্রি হবে তার জন্য আপনি নিদিষ্ট পরিমান টাকা পাবেন।

এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ে আমাদের ওয়েবসাইটে একটি বিস্তারিত পোস্ট রয়েছে।

  • কত টাকা আয় করা যাবে?
  • প্রচুর পরিমানে টাকা আয় সম্ভাবনা রয়েছে।
  • ইনকাম শুরু হতে কত দিন লাগতে পারে
  • কমপহ্মে ৬ মাসতো লাগবেই! কিন্তু প্রচুর পরিশ্রম করতে হবে।
  • কিভাবে শিখব বা শুরু করব?
  • নিচে লিংক দেওয়া আছে।

 সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়াতে কোন পণ্য বা সার্ভিস এর প্রচারণার তদারকির মূল্য দায়িত্বে থাকা। এটি মার্কেটিং বিভাগের অন্যতম একটি সেরাপদ। এই পদটি সাধারণত প্রাইভেট ফার্ম ও কোম্পানিতে পাওয়া যায়। তবে বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি প্রজেক্ট এ চাকরির পদ পাওয়া যায়।

তবে এই জব পাওয়ার আগে আপনার ভেতরে কিছু দক্ষতা থাকতে হবে, যা দ্বারা সোশ্যাল মিডিয়ায় কোন পণ্য বা সার্ভিস এর প্রচার প্রসার দাঁড়া এই কোম্পানির লাভ হয়। যেমন:

https://www.upwork.com

https://www.freelancer.com

https://www.fiverr.com

https://www.peopleperhour.com

https://www.guru.com

তাছাড়াও বিভিন্ন জব সাইটে এই সম্পর্কিত জব পোস্ট করা হয়। তার জন্য আপনি বিভিন্ন অনলাইন জব সাইটে নজর রাখতে পারেন।

  • কত টাকা আয় করা সম্ভব?
  • ভালো পরিমানে টাকা আয় করা সম্ভব।
  • ইনকাম শুরু হতে কত দিন লাগতে পারে?
  • এর কোন নিদিষ্ট তারিখ নেই। কাজ জানলে খুব দ্রুত সম্ভব।

ট্রান্সলেশন ব্যাপারটা হচ্ছে, আপনাকে কোনো একটি ডকুমেন্টকে একটি ভাষা হতে অন্য একটি ভাষাতে রূপান্তর করতে হবে। অনেকে ট্রানসলেশন নিয়ে ফিলান্সিং জব করছে। তবে অবশ্যই আপনি যে ভাষায় ট্রান্সলেট করবেন সে ভাষায় আপনাকে দক্ষ হতে হবে।

ধরুন, আপনি একজন বাঙালি কিন্তু আপনি ভালো ইংরেজি জানেন। তাহলে আপনি আপনার এই ইংরেজি দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন কোম্পানিতে বা অনলাইন মার্কেটপ্লেসে ট্রান্সলেশন করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অর্থাৎ আপনি বাংলা ভাষাকে ইংরেজি করার মাধ্যমে ইংরেজি কে বাংলা করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

https://gengo.com

https://www.smartling.com

https://www.onehourtranslation.com

https://www.upwork.com

https://www.freelancer.com

https://www.fiverr.com

https://www.peopleperhour.com

https://www.guru.com

তাছাড়াও আপনি ফেসবুক গ্রুপ সহ আরো বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ট্রান্সলেশন জব পেতে পারেন।

অনলাইনের মাধ্যমে কোন ব্যক্তিকে কাজে সহায়তাকে করাই হচ্ছে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট। বর্তমানে মানুষের কাজ ব্যাপক হারে অনলাইন ভিত্তিক হওয়ার জন্য অনলাইন মার্কেটপ্লেসে এই কাজের চাহিদা ব্যাপক। তবে এই কাজ করার জন্য আপনাকে অবশ্যই খুব ভালো করে এম এস ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট এবং একসেস সম্পর্কে জানতে হবে।

তাছাড়াও আপনি ফেসবুক গ্রুপ সহ আরো বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট জব পেতে পারেন।

  • কত টাকা আয় করা সম্ভব?
  • ভালো পরিমানে টাকা আয় করা সম্ভব।
  • ইনকাম শুরু হতে কত দিন লাগতে পারে?
  • কাজ জানলে খুব দ্রুতই সম্ভব।

অনলাইনে পণ্য বিক্রি আপনি অনলাইন জব হিসাবে নিতে পারেন। অনলাইনে নতুন ও পুরাতন এই দুই ধরনেরই পন্য বিক্রি করা যায়। এবং তার জন্য এই মার্কেটটি বিশাল আয়তনের। এ ব্যাপারটি অত্যন্ত লাভজনক, যদি আপনি সঠিকভাবে করতে পারেন।

বাংলাদেশে বর্তমানে অনেক অনলাইন পন্য বিক্রির ওয়েবসাইট রয়েছে। যেইগুলোতে আপনি পণ্য অল্প দামে কিনে বিক্রি করে বা অন্যের পণ্য বিক্রি করে দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন।

নিজস্ব ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুক থেকে আপনি অনলাইনে পণ্য বিক্রির ব্যবসা করতে পারেন। আপনি একটু কষ্ট করে গুগোল করে বাংলাদেশে কয়টি অনলাইন বিক্রির ওয়েবসাইট খুঁজে বের করতে পারেন। যেগুলোতে আপনি আপনার পণ্যের এড দিয়ে বিক্রি করতে পারবেন।

  • কি পরিমান টাকা আয় করা সম্ভব?
  • ভালো পরিমানে আয় করা সম্ভব। কিন্তু অনেক কঠিন!! আমার কাছে মনে হয়।
  • ইনকাম শুরু হতে কত দিন লাগতে পারে?
  • খুব দ্রুত সম্ভব। তার আগে মার্কেটিং বুঝতে হবে।

সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে মানুষের ইনকাম করা পদ্বতিতে এসেছে বিশাল পরিবর্তন। যেমন বর্তমানে অনেকই ঘরে বসে ছবি বিক্রি করার মাধ্যমে টাকা আয় করছে। যা আগে ছিল মানুষের কাছে অভাবনার বিষয়।

আগেই বলে দিই, অবশ্যই ছবি তুলে বিক্রি করে টাকা করতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে হতে হবে দহ্ম ফটোগ্রাফার। অনলাইনে অনেক পেইড ওয়েবসাইট রয়েছে যেইগুলো থেকে ছবির ক্রেতারা তাদের প্রয়োজনীয় ছবি কেনে থাকে। সেই ওয়েবসাইট গুলোতে আপনাকে রেজিষ্টেশন করে আপনার ছবি বিক্রি করতে হবে।

https://www.shutterstock.com

https://www.fotolia.com

https://www.gettyimages.com

https://www.istockphoto.com

আরো অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে, আপনি গুগল করে দেখতে পারেন।

  • কি পরিমান টাকা আয় করা সম্ভব?
  • ভালো পরিমানে আয় করা সম্ভব। ক্রিয়েটিভিটি থাকতে হবে ও পরিশ্রমি হতে হবে।
  • ইনকাম শুরু হতে কত দিন লাগতে পারে?
  • দ্রুত সম্ভব।

আমরা এখানে যে অনলাইন জব বা অনলাইন চাকরির তালিকা উল্লেখ্য করেছি, অনলাইনে শুধু আপনি এই জব গুলো করতে পারবেন আসলে তা নয়। অনলাইনে অনেক ফ্রিল্যান্সিং জব রয়েছে যেগুলি আপনি শিখে অনলাইন মার্কেট এ জব করতে পারেবেন। যেমন:

আমরা ইতিমধ্যে, কয়েকটি অনলাইন জব ওয়েবসাইট লিস্ট (Onilne Job Website) উপরের জবগুলির আলেচনায় দিয়ে দিয়েছে। তারপরেও এখন শীর্ষ কয়েকটি অনলাইন জব সাইট তালিকা দিয়ে দিচ্ছি। যা হয়ত পরবর্তী সময়ে আপনার অনলাইন জব (অনলাইন চাকরি) খুজতে বা পেতে কাজে লাগতে পারে।

আমাদের সর্বশেষ কথা,

আশাকরি, আপনি যদি “অনলাইন জব 2022” (Online Job 2022) করতে চান তাহলে অনলাইন ইনকাম Dailytk.com এই পোস্টটি অনেক কাজে দিবে। তারপরেও আপনি যদি আরও কিছু জানতে চান, তাহলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানান। আপনার কমেন্ট আমাদের জন্য অনেক মূল্যবান তাই আপনাদের কিছু জানার থাকলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন?

Leave a Comment