ই পাসপোর্ট চেক অনলাইন। E-passport check online | ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২২

ই-পাসপোর্ট চেক অনলাইন: আমার পূর্বের আর্টিকেল গুলো তে E-passport কি সে সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করা হয়েছে।

এবং সেই আর্টিকেল গুলো তে আমি আপনাদের স্পষ্ট ভাবে দেখিয়ে দিয়েছি যে। একজন ব্যক্তি যদি E passport করতে চায়। তাহলে তার কি কি কাজ করতে হবে।

এবং ই পাসপোর্ট করার জন্য কোন ধরনের ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হয়। আর সেই আর্টিকেল গুলো তে আপনারা অনেকেই কমেন্ট করেছেন।

যে, কিভাবে এই ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক করতে হয়। মূলত যদি আপনি আপনার E passport চেক করতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে এই ই-পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম গুলো সম্পর্কে জানতে হবে।

আর আজকে আমি সেই ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম গুলো নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা করব।

তো আপনি যদি আপনার E passport অনলাইন চেক করতে চান। সেক্ষেত্রে বর্তমান সময়ে আপনি বিশেষ একটি সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

আর সেই সুবিধা টি হল, এই ধরনের ই পাসপোর্ট চেক করার জন্য আপনাকে আর ঘরের বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন পড়বে না।

বরং আপনি নিজের ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে আপনার প্রয়োজনীয় ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক করে নিতে পারবেন। তবে আপনি যদি ঘরে বসে এই কাজ টি করতে চান।

তাহলে অবশ্যই আপনাকে E passport চেক করার নিয়ম গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে হবে। আর আপনি যদি সেই নিয়ম গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে চান।

তাহলে আজকের এই পুরো আর্টিকেল টি মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে। তাহলেই E passport check online বাংলাদেশ, Online passport status check করতে পারবেন।

ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক কেন করবেন?

যদিও বা আজকের আর্টিকেল এর মধ্যে আমি আপনাকে E-passport চেক করার নিয়ম গুলো সম্পর্কে ধারণা দেয়ার চেষ্টা করব।

তবে এর আগে আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যাদের মনে এটি প্রশ্ন ঘুরপাক খাবে। আর সেই প্রশ্ন টি হল যে, E passport অনলাইন চেক কেন করবেন।

অর্থাৎ এমন কোন কারণ রয়েছে, যে কারণ টির জন্য আমাদের কে এই E-passport অনলাইন চেক করার প্রয়োজন হবে। তো আপনার মনে যদি এই ধরনের প্রশ্ন জেগে থাকে।

 

E passport check online
E passport check online

তাহলে এবার আমি এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেয়ার চেষ্টা করব। আর সে জন্য আপনাকে নিচের আলোচিত আলোচনায় নজর রাখতে হবে।

তো দেখুন আমরা সবাই জানি যে, একজন ব্যক্তি যখন ই পাসপোর্ট করতে চাইবে। তখন তার বিভিন্ন প্রকারের ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে।

এর পাশাপাশি সেই ব্যক্তি কে উক্ত ডকুমেন্টস গুলো সহ অনলাইন এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। আর যখন সেই ব্যক্তি অনলাইন এর মাধ্যমে ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করবে।

তখন তাকে একটি অনলাইন ফরম দেয়া হবে। যে ফর্ম এর মধ্যে ওই ব্যক্তির যাবতীয় তথ্যাদি প্রদান করতে হবে। এবং সেই অনলাইন ফর্ম টি প্রিন্ট করে পাসপোর্ট অফিসে যেতে হবে।

আর সবশেষে সেই ব্যক্তি কে সেই ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করা অনলাইন ফর্ম সহ প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট গুলো পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে প্রদান করতে হবে।

আর যখন আপনি উপরোক্ত কাজ গুলো সঠিক ভাবে করতে পারবেন। তখন আপনার ই পাসপোর্ট এর কাজ গুলো চলমান থাকবে।

তবে সেই ই পাসপোর্ট তৈরি হওয়ার কাজ কতদূর অগ্রসর হয়েছে। এবং আপনার ই পাসপোর্ট তৈরি হয়েছে কিনা। সেটি জানার জন্যই কিন্তু ই পাসপোর্ট চেক করতে হয়।

আর বর্তমান সময়ে আপনি চাইলে ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক করতে পারবেন।

অর্থাৎ সেজন্য আপনাকে আর সরাসরি পাসপোর্ট অফিসে যাওয়ার প্রয়োজন পড়বে না। বরং আপনি নিজের ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম অনুসারে।

খুব সহজেই আপনার ই পাসপোর্ট সম্পন্ন হয়েছে কিনা তা জেনে নিতে পারবেন।

E passport হয়েছে কি-না, কিভাবে জানবেন ?

যখন আপনি ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করবেন। তখন আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হয়ে দাঁড়াবে।

যে, আপনার ই পাসপোর্ট হয়েছে কিনা সে সম্পর্কে জেনে নেওয়া। তো একজন ব্যক্তির ক্ষেত্রে তার আবেদন কৃত ই পাসপোর্ট হয়েছে কিনা।

তা সে ব্যক্তি খুব সহজেই জেনে নিতে পারবে। আর E-passport অনলাইন চেক করার জন্য অবশ্যই সেই ব্যক্তি কে ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম গুলো মেনে কাজ করতে হবে।

সেজন্য প্রথমেই সেই ব্যক্তি কে ই পাসপোর্ট এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। যদি আপনি E-passport এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট খুঁজে না পান।

সে ক্ষেত্রে সরাসরি এখানে ক্লিক করে ই পাসপোর্ট এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন। তো যখন আপনি ই পাসপোর্ট এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন।

তখন আপনি বিভিন্ন ধরনের অপশন দেখতে পারবেন। আপনাকে সরাসরি সেই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পরে আপনার ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট দিয়ে লগইন করতে হবে।

আর লগইন করার পরেই আপনি (Check Application Status) নামের একটি অপশন দেখতে পারবেন।

আপনাকে সেই অপশন এর মধ্যে ক্লিক করতে হবে। মূলত এরপরে আপনি আপনার অ্যাপ্লিকেশন আইডি প্রদান করার পর যখন সাবমিট বাটনে ক্লিক করবেন।

অ্যাপ্লিকেশন আইডি আপনার ডেলিভারি স্লিপের উপরেই পেয়ে যাবেন। তখন আপনি খুব সহজেই জেনে নিতে পারবেন যে, আপনার আবেদন কৃত ই পাসপোর্ট হয়েছে কিনা।

মূলত এভাবেই আপনি আপনার ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক করতে পারবেন।

ই পাসপোর্ট চেক করতে কি কি লাগে ?

উপরের আলোচনা তে আমি আপনাকে স্বল্প আকারে ধারণা দেয়ার চেষ্টা করেছি যে। কিভাবে আপনি ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক করবেন।

তো আপনি যদি একজন নতুন ব্যক্তি হয়ে থাকেন। এবং আপনার যদি ই পাসপোর্ট চেক করার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট সম্পর্কে ধারণা না থাকে।

সে ক্ষেত্রে উপরের এই আলোচনা টি আপনার জন্য অতি প্রয়োজনীয়। তবে এখন অনেকেই জানতে চাইবেন।

যে, এই ই পাসপোর্ট চেক করতে কি কি লাগে। যদিও বা এই ই পাসপোর্ট চেক করার জন্য খুব বেশি কিছুর প্রয়োজন হয় না।

তবে যে গুলো ছাড়া আপনি কোন ভাবেই ই পাসপোর্ট চেক করতে পারবেন না। সে গুলো নিয়ে এবার আমি আলোচনা করব।

তো ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক করার জন্য প্রথমত আপনার যে বিষয় এর প্রয়োজন হবে।

সেটি হল আপনার রেজিস্ট্রেশন আইডি। যাকে অনেকেই অ্যাপ্লিকেশন আইডি বলে থাকে। মূলত যখন আপনি ই পাসপোর্ট এর জন্য অনলাইন এর মধ্যে আবেদন করবেন।

তখন আপনাকে একটি রেজিস্ট্রেশন আইডি প্রদান করা হবে। আর যখন আপনি পরবর্তী সময়ে আপনার সেই আবেদন করা ই পাসপোর্ট সম্পর্কে জানতে চাইবেন।

তখন আপনার সেই রেজিস্ট্রেশন আইডি এর প্রয়োজন হবে। এর পাশাপাশি আপনার পাসপোর্ট এর মধ্যে প্রদান করার যে জন্ম তারিখ থাকবে সেটির প্রয়োজন হবে।

মূলত এই ই পাসপোর্ট চেক করার অফিসিয়াল ওয়েব সাইটে প্রবেশ করার পরে। যখন আপনি আপনার রেজিস্ট্রেশন আইডি এবং জন্ম তারিখ প্রদান করবেন।

তখন আপনি খুব সহজেই ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক করতে পারবেন। আশা করি ই পাসপোর্ট চেক করতে কি কি লাগে তা এই স্বল্প আলোচনা থেকে আপনি ধারণা নিতে পেরেছেন।

অনলাইনে নতুন পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম

এতক্ষণ থেকে আপনি E-passport অনলাইন চেক করার নিয়ম গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে পেরেছেন।

তবে এই বিষয় গুলো জানার পাশাপাশি আপনাকে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে জেনে নিতে হবে।

আর সেই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, নতুন ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম গুলো সম্পর্কে আপনাকে জানতে হবে। অর্থাৎ আপনি যদি একজন নতুন ব্যক্তি হিসেবে ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করেন।

তাহলে আপনি কিভাবে তা চেক করবেন। মূলত আপনি যদি এই বিষয় টি সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে এবারের আলোচনা টি আপনার জন্য অনেক প্রয়োজনীয়।

চলুন এবার তাহলে সে সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জেনে নেওয়া যাক।

তো যদি আপনি নতুন ই পাসপোর্ট চেক করতে চান। তাহলে প্রথমেই আপনাকে আপনার ডিভাইস থেকে যে কোনো একটি ব্রাউজার সিলেক্ট করতে হবে।

এবং আপনাকে সেই ইন্টারনেট ব্রাউজার টি ওপেন করতে হবে। এরপরে আপনাকে সরাসরি ই পাসপোর্ট এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।

আপনি চাইলে এখানে ক্লিক করে সরাসরি ই পাসপোর্ট অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন।

যখন আপনি তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন। তখন আপনি Check Status নামের একটি অপশন দেখতে পারবেন।

আর এই অপশনে ক্লিক করার পরে আপনাকে আপনার অ্যাপ্লিকেশন আইডি এবং জন্ম তারিখ প্রদান করতে হবে।

এর পরে রোবট লেখাতে মার্ক করে আপনাকে Check নামক বাটনে ক্লিক করলেই। আপনি আপনার নতুন E passport চেক করতে পারবেন।

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম

আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত তার কাছে থাকা পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে পাসপোর্ট চেক করতে চায়।

তো আপনি যদি কখনো এই চেষ্টা করে থাকেন। তাহলে আপনি কোনভাবেই আপনার এই পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে পাসপোর্ট চেক করতে পারবেন না।

কারণ বর্তমান সময়ে আমাদের বাংলাদেশের এখনো এরকম কোন পদ্ধতি চালু হয়নি। যেখান থেকে আপনি পাসপোর্ট নম্বর দিয়ে পাসপোর্ট করার সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

আরো পড়ুন..

তবে আপনি আসলে কিভাবে আপনার পাসপোর্ট চেক করতে পারবেন। তা নিয়ে উপরে পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম গুলো আলোচনা করা হয়েছে।

এবং আপনি এই নিয়ম গুলো অনুসরণ করে খুব সহজেই ই পাসপোর্ট অনলাইন চেক করে নিতে পারবেন।

সাধারণ পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম

যদিও বা আগেকার দিন গুলো তে সাধারণ পাসপোর্ট নম্বর দিয়ে পাসপোর্ট চেক করার সুযোগ ছিল। তবে বর্তমান সময়ে ই পাসপোর্ট আসার কারণে এই সুবিধা টি আর পাওয়া যায় না।

বরং আজকের দিনে ই পাসপোর্ট চেক করার জন্য অবশ্যই আপনাকে অ্যাপ্লিকেশন আইডি এবং জন্ম তারিখের প্রয়োজন হবে।

এবং যখন আপনি এই অ্যাপ্লিকেশন আইডি এবং জন্ম তারিখ ই পাসপোর্ট এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রদান করবেন।

তখন আপনি আপনার ই পাসপোর্ট এর বর্তমান অবস্থা জানতে পারবেন।

এসএমএস দিয়ে পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম

সর্বপ্রথম আপনাকে মেসেজ অপশনে যেতে হবে। আর যখন আপনি আপনার মেসেজ অপশনে যাবেন। তখন আপনাকে MRP টাইপ করতে হবে।

এরপরে আপনাকে একটি স্পেস দিতে হবে। তারপরে আপনাকে Enrolment ID Number বসিয়ে দিতে হবে। এবং সবশেষে আপনাকে উক্ত মেসেজ টি 6969 এই নম্বরে পাঠিয়ে দিতে হবে।

ই পাসপোর্ট কত দিনে পাওয়া যায় ২০২২

মূলত E-passport কতদিনে পাবেন সেটা নির্ভর করবে আপনি আসলে কত বছর মেয়াদী এবং কত পাতার ই পাসপোর্ট করতে করতে চান।

কেননা এই ধরনের ই পাসপোর্ট গুলো মূলত আপনি বিভিন্ন বছর মেয়াদী পাবেন। এবং ৪৮ এবং ৬৪ পাতার পাসপোর্ট দেখতে পারবেন।

তো এই ধরনের ই পাসপোর্ট এর ভিন্ন মেয়াদী এবং ভিন্ন পাতার দিক থেকে বিবেচনা করে। আপনি দুইদিন থেকে ১৫ দিনের মধ্যে ই পাসপোর্ট পেয়ে যাবেন।

ই পাসপোর্ট হেল্পলাইন

মূলত যখন আপনি ই পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করবেন। কিংবা ই পাসপোর্ট চেক করতে চাইবেন। তখন আপনার বিভিন্ন কারণে তাদের সাথে যোগাযোগ করার প্রয়োজন হবে।

আর সেই সময়ে আপনার ই পাসপোর্ট হেল্পলাইন নাম্বার এর দরকার হবে। তো কোনো কারণে যদি আপনার ই পাসপোর্ট হেল্পলাইন এর প্রয়োজন হয়।

তাহলে আপনি 02-8123788 এই নম্বরে কল করে সরাসরি তাদের সাথে কথা বলতে পারবেন।

আমাদের কথা,

E-passpor অনলাইন চেক এবং E-passpor চেক করার নিয়ম গুলো নিয়ে আজকে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়েছে।

তো আপনি যদি আপনার E-passpor চেক করতে চান। তাহলে আজকে আলোচিত এই আলোচনা গুলো আপনার জন্য অতি প্রয়োজনীয়।

আর এরপরও যদি আপনার কোন প্রকারের সমস্যা হয়ে থাকে। তাহলে অবশ্যই নিচে একটা কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করব আপনার সমস্যার সমাধান করার জন্য।

আর আপনি যদি এই ধরনের ইনফর্মেশন তথ্য গুলো জানতে চান।

তাহলে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকবেন। আজকের এই আর্টিকেলের এই পর্যন্তই আপনারা সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন, ধন্যবাদ।

Leave a Comment