ই-পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ | E Passport Fee BD

এখন বর্তমানে বাংলাদেশ সহ সকল দেশের প্রায় সকল আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে E Passport আবেদন নেওয়া শুরু করেছে। E Passport আবেদন করার সময় ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ তা নির্ভর করছে তোমাদের পাসপোর্টের মেয়াদ ৫ বছর নাকি ১০ বছর মেয়াদি E Passport।

তাছাড়া ই-পাসপোর্ট, ৪৮ পৃষ্ঠা ও ৬৪ পৃষ্ঠার ই পাসপোর্ট ফি কম বেশি হবে।

এছাড়া, E Passport Fee কত হবে তা নির্ভর করছে তুমি দেশের ভিতর থেকে ই-পাসপোর্ট আবেদন করেছ, হতে পারে বাংলাদেশ নাকি বাংলাদেশের বাইরে কোন মিশন বা দূতাবাসে গিয়ে আবেদন করেছ।

সেই সাথে তোমার আবেদন টাইপ কত ধরা হবে (রেগুলার, এক্সপ্রেস, বা সুপার এক্সপ্রেস) এর উপরও নির্ভর করবে ই পাসপোর্ট ফি ২০২২ এ কত টাকা লাগবে।

এখন বর্তমান বিশ্বে ১১৯তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ E Passport চালু করে। তাই, ৫ বছর,  ১০ বছর মেয়াদি E Passport করতে কত টাকা লাগে সে সম্পর্কে অনেকেই জানেনা।

E Passport না জানার কারণে অনেক সময় দালালের ফাঁদে পা দিয়ে অতিরিক্ত টাকা পয়সা খরচ করে ফেলেন অনেকেই।

ই পাসপোর্ট ফি কত
ই পাসপোর্ট ফি কত

তাই, আজকে আমরা জানব সাধারণ, জরুরীসহ সকল প্রকার ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২, এবং সেইসাথে E Passport fee জমা দেওয়ার উপায় ও কোন কোন ব্যাংকে E Passport fee জমা দেওয়া যায়, সেসব বিষয়ে জেনে নিব।

ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ | e Passport Fee in Bangladesh

অনলাইনে E Passport জন্য আবেদন সাবমিট করার পর E Passport fee জমা দিতে হয়। তারপর তোমাকে যে কাজ করতে হবে, আবেদন ফরম ও পেমেন্ট রশিদ নিয়ে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে তোমাকে যেতে হবে।

E Passport fee কত হবে তা নির্ভর করছে তুমি কত দিনের মধ্যে E Passport হাতে পেতে চাও এবং কত পাতার পাসপোর্ট নিবে তা নির্ভর করবে তোমার উপর।

১। নিয়মিত ডেলিভারি: বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে 15 কার্যদিবস / 21 দিনের মধ্যে।

২। এক্সপ্রেস ডেলিভারি: জরুরী ভিত্তিতে Passport ডেলিভারি। বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে 7 কার্যদিবস / 10 দিনের মধ্যে।

৩। সুপার এক্সপ্রেস ডেলিভারি: অতি জরুরী Passport আবেদনের ক্ষেত্রে বায়োমেট্রিক তালিকাভুক্তির তারিখ থেকে 2 কার্যদিবসের মধ্যে।

সরকারি কর্মচারী যাদের NOC অথবা অবসরপ্রাপ্ত ডকুমেন্ট (PRL) আছে তারা নিয়মিত ডেলিভারি ফিতে এক্সপ্রেস সুবিধা পাবে।

বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ই পাসপোর্ট ফি

পৃষ্ঠা, মেয়াদ এবং ডেলিভারি ধরনের উপর নির্ভর করে E Passport Fee কত দেখে নিন।

আরো পড়ুন..

একনজরে ৫ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট ফি

ডেলিভারি                 ৪৮ পাতা ই পাসপোর্ট ফি             ৬৪ পাতা ই পাসপোর্ট ফি

রেগুলার                     4,025 টাকা                                          6,325 টাকা

এক্সপ্রেস/জরুরী        6,325 টাকা                                          8,625 টাকা

সুপার এক্সপ্রেস          8,625 টাকা                                          12,075 টাকা

একনজরে ১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট ফি

ডেলিভারি                          ৪৮ পাতা ই পাসপোর্ট ফি                    ৬৪ পাতা ই পাসপোর্ট ফি

রেগুলার                              5,750 টাকা                                                 8,050 টাকা

এক্সপ্রেস/জরুরী                 8,050 টাকা                                               10,350 টাকা

সুপার এক্সপ্রেস                   10,350 টাকা                                              13,800 টাকা

বাংলাদেশ দূতাবাসে সাধারণ আবেদনকারীদের জন্য E Passport Fee

১।48 পৃষ্ঠা এবং ৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি 

নিয়মিত ডেলিভারি: 100 ডলার
এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 150 ডলার

২। 48 পৃষ্ঠা এবং ১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি 

নিয়মিত ডেলিভারি: 125 ডলার
এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 175 ডলার

৩। 64 পৃষ্ঠা এবং ৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি 

নিয়মিত ডেলিভারি: 150 ডলার
এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 200 ডলার

৪। 64 পৃষ্ঠা এবং ১০ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট ফি 

নিয়মিত ডেলিভারি: 175 ডলার
এক্সপ্রেস ডেলিভারি: 225 ডলার

বাংলাদেশ দূতাবাসে শ্রমিক ও ছাত্রদের জন্য E Passport Fee

E Passport Fee র সাথে ১৫% ভ্যাট দিতে হবে। এখানে সকল হিসাবে ভ্যাট অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সুতরাং, E Passport করার সর্বমোট খরচ উপরে উল্লেখিত পরিমাণের এতটাও বেশি নয়।

E Passport Fee জমা দেওয়ার নিয়ম

E Passport Fee দুই উপায়ে প্রদান করতে পারবে, অফলাইন তথা ব্যাংক এ গিয়ে, এবং অনলাইন তথা তোমার নিউজ ঘরে বসে।

অনলাইন E Passport Fee এর জমা দেওয়ার উপায়:

(a) Debit Card/Credit Card (Master Card, Visa Card, American Express, DBBL Nexus)

(b) Mobile Banking (Cash, Bikash, Rocket, OK Wallets, Upay)

(c) Internet Banking (Bank Asia)

(d) Wallet (Dmoney, UPay)

অফলাইন বা ব্যাংকে E Passport Fee জমা দেওয়ার উপায়:

ব্যাংক চালানের মাধ্যমে যেকোনো সরকারি বা বেসরকারি ব্যাংকে পরিশোধ করা যেতে পারে। বর্তমানে ৬ টি ব্যাংকে পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়া যাচ্ছে। ব্যাংকগুলো হলো;

  • Sonali Bank
  • Dhaka Bank
  • Bank Asia
  • Premier Bank
  • One Bank and
  • Trust Bank

ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ নিয়ে আমাদের শেষ কথা

আশা করি তোমরা এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে ই পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ এবং পাসপোর্ট আবেদনের ফি জমা দেওয়ার সকল উপায় সম্পর্কে তোমার সকল প্রশ্নের উত্তর ভালোভাবে জানতে পেরেছো। তোমার মনে এখনো Passport সম্পর্কিত কোনো প্রশ্ন থেকে থাকলে আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে পার।

1 thought on “ই-পাসপোর্ট ফি কত ২০২২ | E Passport Fee BD”

Leave a Comment