সরকারি উপবৃত্তি ২০২১

এখানে ক্লিক করে আবেদন করুন

সরকারি উপবৃত্তি ২০২১ গতকাল থেকে আজ পর্যন্ত অনেকেই জানতে চাইছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দেওয়া উপবৃত্তি (শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী,ছাত্র-ছাত্রী দের আর্থিক অনুদান) -এর বিজ্ঞপ্তি কি সত্য? নাকি গুজব? বা এই বিষয়ে কিছু জানি কিনা। তা আপনারা সরকারি দেওয়া ঘোষণা টি দেখলে বুঝতে পারবেন? নিচে দেওয়া হলসরকারি অনুদান ২০২১  হ্যাঁ, এটা ১০০% সত্য তথ্য। এই অনুদানটা সরকারিভাবে দেওয়া হবে। একটা কমিটিও হয়েছে বাছাই করার জন্য। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পাবে মোট অনুদানের ২০% টাকা, শিক্ষক-কর্মচারী পাবে ১০% এবং বাকী ৭০% পাবে ছাত্র-ছাত্রীরা।

এই ছাত্র-ছাত্রীদের ভিতর আবার ৩৫% অনুদান যাবে ৬-৮ শ্রেণীর, ২৫% যাবে ৯-১০ শ্রেনীর, ১১-১২ শ্রেণী পাবে ২০% এবং স্নাতক ও তার উপরের শিক্ষার্থীরা পাবে ২০% অনুদান।স্নাতক’রা পাবে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা। নগদ খোলা আছে এমন ফোন নাম্বার দিতে হবে।

আবেদনের শেষ দিন ছিল গত মাসের ২৮ তারিখ, কিন্তু সেটা বাড়িয়ে ৭ মার্চ করা হয়েছে। তবে সার্ভারে এখন কাজ চলায় আবেদন জমা দেওয়া যাচ্ছে না। তাই মাঝে মাঝে যেয়ে চেক করে আসেন, সার্ভার ঠিক হলেই আবেদন করে ফেলুন।

মন্ত্রণালয় থেকে এই বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে যে, উক্ত বিষয়ে মন্ত্রণালয় থেকে কোনো ফোন করা হবে না বা কোনো ব্যক্তিগত তথ্য চাওয়া হবে না বা আপনার নগদ একাউন্ট সম্পর্কে কোনো গোপন তথ্য চাওয়া হবে না। তাই এই বিষয়ে কোনো তথ্য দেওয়া থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

বিঃদ্রঃএখন পর্যন্ত কেউ আবেদন করতে না পারলে কিভাবে অনলাইনে আবেদন করবেন তা নিচে দেখে নিন?

এখানে ক্লিক করে আবেদন আবেদন করেন  

প্রয়োজনীয় কাগজপত্রঃ

১/ বর্তমানে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত আছেন সেখান থেকে প্রতিষ্ঠান প্রধান/ বিভাগীয় প্রধানের স্বাক্ষরিত প্রত্যয়ন পত্র।
২/ নিজের আইডি কার্ড/ জন্ম নিবন্ধন সনদের নম্বর।
৩/ পিতা ও মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর
৪/ ইমেইল এড্রেস
৫/ সচল মোবাইল নম্বর (অবশ্যই নগদ একাউন্ট সচল থাকতে হবে! নাহ থাকলে,খুলে নিবেন)
আবেদন ফরম পূরণের নিয়মাবলীঃ
আবেদন ফরমের লাল তারকা চিহ্নিত ঘরগুলো অবশ্যই পূরণ করুন। অন্যান্য ঘরগুলো পূরণ ঐচ্ছিক। নিচের স্কিনশটের চিহ্নিত অপশনগুলো অনুসরণ করতে পারেন।
সরকারি অনুদান পেতে এ লিংকে ক্লিক করেন
১/ শুরুতে (https://eksheba.gov.bd/service ) লিংক-এ প্রবেশ করে নিবন্ধন অপশনে ক্লিক করে সচল মোবাইল নম্বর ও পূর্ণ নাম দিয়ে নিবন্ধন সম্পূর্ন করুন।
২/ পরের ধাপে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর / জন্ম নিবন্ধন সনদের অনলাইন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে পরবর্তী ধাপে যান।
৩/ এই ধাপে ‘সহয়তা/ভাতা/অনুদান’ অপশনে ক্লিক করে ৩৮ নং ‘শিক্ষার্থীদের আর্থিক অনুদান’ অপশনে ক্লিক করবেন।
৪/ এরপরের ধাপে আপনার সকল তথ্য এবং প্রত্যয়নপত্র আপলোড করে আবেদন সম্পন্ন করতে পারবেন।
৫/ আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পূর্বে প্রয়োজন হলে সংরক্ষণ করা যায় এবং পরবর্তীতে সেবা ব্যবস্থাপনা অপশন হতে ড্রাফট আবেদন পুনরায় শুরু করা যাবে।
৬/ আবেদন দাখিলের পর প্রতিটি আবেদনের জন্য একটা স্বতন্ত্র ট্রাকিং নম্বর প্রদান করা হবে যেটা ব্যবহার করে সেবা ব্যবস্থাপনা অপশন হতে আবেদনের অগ্রগতি জানা যাবে।
৭/ প্রত্যয়ন পত্র আপলোডের জন্য (সর্বোচ্চ ফাইলের আকার ১০ মেগাবাইট। অনুমোদিত ফাইল এক্সটেনশান সমূহ: gif, png, jpg, jpeg, pdf)
সেবা প্রদানের সময়সীমা ১২০ কার্যদিবস। মোবাইল ব্যাংকিং(নগদ) পদ্ধতিতে অর্থ প্রদান করা হবে। স্নাতক/সমমান পর্যায়ে অনুমোদিত বাজেট এর উপর নির্ভর করে একজন শিক্ষার্থী প্রতি সর্বোচ্চ
10000/- টাকা মঞ্জুর করা যাবে।
আবেদনের শেষ তারিখ ১৫/০৩/২০২১

এখানে ক্লিক করে আবেদন করেন  

আমরা যারা ছাত্র-ছাত্রী আছেন তারা অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করব। কারণ এই পোস্ট দেখি অনেকেই অনলাইনে আবেদন করবে। আমাদের ভিতরে ছাত্র-ছাত্রী আছে অনেক গরীব অসহায় আপনারা যদি এই পোস্ট শেয়ার করেন তাহলে তারা ম্যাসেজটি পেয়ে যাবে তারাও অনলাইনে আবেদন করবে।

আমরা যারা ছাত্র-ছাত্রী আছে তারা যেন সবাই অনলাইনে শিক্ষা উপবৃত্তি সহায়তা পেয়ে থাকি। আমরা যারা ছাত্র ছাত্রী আছি তারা এই পোস্ট শেয়ার করব।

আমরা যারা অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে চায় তারা খুব সহজে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারব। বাংলা আর্টিকেল বাংলাদেশী ওয়েবসাইট।

এই ওয়েবসাইটে অনেক অনলাইন বিষয়ে পোস্ট দেওয়া আছে চাইলে আপনারা সেই গুলো ভালোভাবে পড়ে নিতে পারেন এবং অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তাই আর দেরি না করে পোস্টগুলো এখনি দেখে নিন। আমরা ছাত্র জীবনের পাশাপাশি বাড়তি কিছু টাকা উপার্জন করতে চেষ্টা করি তাই অনলাইন থেকে টাকা ইনকামের এটি একটি ভালো মাধ্যম।

বন্ধুরা তাই আর দেরি না করে এই ওয়েবসাইটে পোস্ট গুলো দেওয়া আছে তাড়াতাড়ি দেখে নিন।

Leave a Comment