ব্লগ লিখে আয় করার উপায় – জানুন বিস্তারিত!!

বর্তমানে ব্লগ লিখে অনলাইন আয় একটি অন্যতম ইনকাম প্লাটফর্ম হিসাবে গড়ে উঠেছে। কেননা অনলাইনেই অনেকে নিজের ক্যারিয়ারকে খুঁজে নিচ্ছে। বাংলাদেশেরই দৈনন্দিনের খবরের কাগজগুলো দেখলেই আপনি বুঝতে পারবেন এটি কতটা জনপ্রিয়।

বর্তমানে একজন ছাত্র থেকে শুরু করে একজন অফিস কর্মী অফিস বাদ দিয়ে ছুটে পড়ছেন এসব অনলাইন কাজের পিছনে। আর তেমনি একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হলো ব্লগ লিখে আয়। আজ তাই আমরা এই জনপ্রিয় মাধ্যমটি সমন্ধে আলোচনা করব যেখানে আপনি জানতে পারবেন ব্লগ লিখে আয় করার উপায় সমূহ। সাথেই থাকুন।

ব্লগে লিখে আয় করা উপায় । অনলাইন ইনকাম
ব্লগে লিখে আয় করা উপায়

ব্লগ বা ব্লগিং কি?

ব্লগ বলতে মূলত এমন একটি স্থানকে বোঝানো হয় যেখানে আপনি ইচ্ছামতো যেকোনো কিছু নিয়ে লিখতে পারেন। আর অনলাইন দুনিয়া ডায়েরীর মতো ।  এই জিনিসটাকেই ওয়েব ব্লগ  বা সংক্ষেপে ব্লগ হিসাবে অ্যাখ্যায়িত করা হয়। এখানে ব্লগ বলতে আপনার পছন্দের কিছুর লেখাকেই মূলত প্রাধান্য দেয়া হয়। তবে ডায়েরীতে যেভাবে আবছা আবছা বা কোড ব্যবহার করে লিখেন তা এখানে চলবে না। কারণ আপনার ব্লগ কিন্তু সবাই পড়বে। তো এই ব্লগে লেখা লেখির কাজকেই মূলত ব্লগিং হিসাবে অ্যাখ্যায়িত করা হয়।

আর এই ব্লগ লিখে যিনি অভ্যস্ত বা যিনি ব্লগিং পেশার সাথে জড়ীতে তাকে মূলত ব্লগার হিসাবে ডাকা হয়। আর এই ব্লগ থেকেই আপনি হাজার হাজার টাকা খুব সহজেই আয় করতে পারবেন। তো এখন আমরা আলোচনা করব ব্লগ থেকে আয় করার তিনটি উপায়।

আরও পড়ুন:

ব্লগ লিখে আয় করার ৩টি উপায়-

ব্লগ লিখে আয় করার জনপ্রিয় কয়েকটি উপায়ের মধ্যে ৩টি উপায় হলো – গুগল অ্যাডসেন্স এর মাধ্যমে আয়, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয়, প্রোডাক্ট প্রোমোশন করে আয়। নিচে তিনটি উপায় সমন্ধে আলোচনা করা হলোঃ

গুগল এডসেন্স মাধ্যমে ব্লগ লিখে আয়-

আমাদের সবারই জানা এবং অভিজ্ঞতা আছে যে আমরা কোনো ওয়েবসাইট ভিজিটের সময় সেখানে কিছু অ্যাড বা বিজ্ঞাপন দেখে থাকি। কখনো কি নিজেকে প্রশ্ন করে দেখেছি যে এই সব বিজ্ঞাপন কেন দেখানো হয়?

হ্যাঁ, আপনি যা ভাবছেন তাই। এই সব বিজ্ঞাপন দেখানো হয় আয়ের বা ইনকাম এর জন্যই। আর ব্লগে গুগল এডসেন্স- এর মাধ্যমে অ্যাড লাগিয়ে আপনিও আয় করতে পারবেন হাজার হাজার টাকা। এক্ষেত্রে আপনাকে কিন্তু কোনো প্রকার টাকা ঢালতে হবে না। বলতে পারেন বিনা বিনিয়োগে ব্যবসা

আর ব্লগে একটু ভালো রকম ভিজিটর্স হলে আপনি খুব সহজেই আপনার মাসিক ইনকামটা এখান থেকেই পেতে পারবেন। আপনাকে কোনো চাকরি করতে হবে না।

এখানে অনেকেই একটা জিনিস বলতে পারেন যে, ব্লগ তো সবসময় এডসেন্স- এর দ্বারা এপ্রুভ হয় না। সেক্ষেত্রে আমরা তো ব্লগ থেকে আয় করতেপারব ? তখন আমাদের করণীয় কি হবে ?

সেক্ষেত্রে ঘাবড়ে যাবার কিছুই নেই। এখন আপনি হাজার হাজার ব্লগ খুঁজে পাবেন যেখানে আপনি অনেক অ্যাড দেখতে পারবেন। তবে এগুলো কোনোটাই কিন্তু এডসেন্স- এর অ্যাড নয়। এগুলো সবই হচ্ছে লোকাল অ্যাড। হ্যাঁ এসব অ্যাড হচ্ছে লোকাল কিছু কোম্পানির অ্যাড। সেসব ব্লগে ভিজিটর বেশি হওয়ার কারণে সেখানে গুগল র‍্যাংকিং এরও তেমন কোনো দরকার হয় না। আর তাই গুগল এডসেন্স- এর ও প্রয়োজন নেই। আপনিও এমনিভাবে লোকাল অ্যাড দেখিয়ে আয় করতে পারবেন।

আরও পড়ুন:

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে ব্লগ লিখে আয়-

ব্লগিং মূলত কয়েক প্রকারের হয়ে থাকে। কারণ আপনাকে আগেই বলেছি। আপনার ইচ্ছার উপর ভিত্তি করে যেহেতু আপনি ব্লগ বানান তাই আপনার ইচ্ছার উপর ভিত্তি করেই ব্লগের নিশ ঠিক হয়।

এখন ধরুন আপনি টেকনোলজি সমন্ধিত কোনো কিছু নিয়ে ব্লগ লিখে থাকেন। সেক্ষেত্রে আপনি কিন্তু বিভিন্ন টেকনোলজি যেমন মোবাইল ফোন বা কম্পিউটার, ল্যাপটপ এর রিভিউ নিয়েও আর্টিকেল বা ব্লগ লিখতে পারেন। আর এসব কিছুর শেষেই আপনি আপনার যেকোনো এফিলিয়েট লিংক অ্যাটাচ করে দিতে পারেন এর মাধ্যমেও আপনার আয় হবে।

তবে আপনার পছন্দ যদি টেকনোলজি সমন্ধিত না হয় সেক্ষেত্রে কি করণীয় তাই ভাবছেন তো?

সেক্ষেত্রেও চিন্তা নেই। আপনি একইভাবে আপনার ব্লগে অ্যাফিলিয়েট লিংক অ্যাটাচ করে আয় করতে পারবেন। তবে এজন্য আপনাকে একটু বেশি অডিয়েন্স এর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে হবে। কারণ আপনার নর্মাল অডিয়েন্সরা টেকনোলজি নিয়ে অভ্যস্ত না। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

প্রোডাক্ট প্রোমোশনের মাধ্যমে ব্লগ লিখে আয়-

ব্লগ থেকে আয় করার অন্যতম একটি উপায় হলো প্রোডাক্ট প্রোমোশনের মাধ্যমে আয়। বলতে পারেন প্রোডাক্ট প্রোমোশন আবার কি জিনিস?

সেক্ষেত্রে আমি খুব সহজভাবে আপনাকে বলতে চাই প্রোডাক্টের মার্কেটিং করাই মূলত হলো প্রোডাক্ট প্রোমোশন। অর্থাৎ কোনো একটি প্রোডাক্ট এর সেল বা বিক্রি বৃদ্ধির জন্য জনগণের সামনে যথাযথ ভাবে তুলে ধরা। এখন প্রশ্ন হলো কার প্রোডাক্ট প্রোমোট করবেন তাই তো?

সে বিষয়ে আপনাকে মোটেও চিন্তা করতে হবে না। আপনি আপনার আশেপাশেই বিভিন্ন কোম্পানি বা শপ দেখে থাকবেন। এসব কোম্পানি বা শপ থেকেই আপনি অফার পেতে পারেন যদি আপনি একটি ভালো মানের ব্লগ তৈরি করতে পারেন। আর আপনার অ্যাড বৃদ্ধির জন্য আপনার আশেপাশের দোকানদারদেরকে এই অ্যাড দেখানোর বিষয়টির গুরুত্ব সম্পর্কে সচেতন করে তুলুন। দেখবেন কিছু দিনের মধ্যেই আপনার জনপ্রিয়তা তুমুলে পৌছেছে।

আর এভাবেই প্রোডাক্ট প্রোমোশনের মাধ্যমে আপনিও আয় করতে পারেন শুধুমাত্র ব্লগ লিখে।

আরও পড়ুন:

ব্লগ লিখে আয় এর জন্য যা যা মনে রাখতে হবে-

ব্লগ লিকহলেই যে আপনি আয় করতে পারবেন তা কিন্তু নয়। এমন অনেকেই আছেন যারা বছর বছর ধরে ব্লগ লিখেও তেমন কোনো ফলাফল এখনো পর্যন্ত পাচ্ছেন না। আপনি হয়তো তাদের কাতারে পড়তে চাইবেন না। তাই আমি এখন আপনাকে বলব ব্লগ লিখে আয় করার জন্য আপনাকে যা যা মনে রাখতে হবে। সাথেই থাকুন-

কপিরাইট ফ্রি কন্টেন্ট-

আপনি কখনোই অন্য ব্লগ থেকে কন্টেন্ট কপি করে নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে পাবলিশ করতে পারবেন না। কেননা এতে করে আপনার ব্লগে প্লাগিয়ারিজম বা নকল বেড়ে যাবে। আর আপনি জেনে অবাক হবেন যে এই প্লাগিয়ারিজম এর জন্যও আপনি গুগল অ্যাডসেন্স পরিষেবা নাও পেতে পারেন যার কারণে আপনার ব্লগ বৃথা।

বলতে পারেন আপনি কপি করেছেন তা বুঝবে কি করে। সেক্ষেত্রে আপনাকে পরিষ্কার করিয়ে দিতে চাই যে এখন অনলাইনে ডুপ্লিকেট চেকার লিখে সার্চ দিলেই আপনি হাজার হাজার প্লাগিয়ারিজম চেকার পেয়ে যাবেন। এগুলোর দ্বারাই বুঝতে পারবেন। তাই সব সময় চেষ্টা করুন কপি রাইট ফ্রি কন্টেন্ট ব্যবহার করার।

কন্টেন্ট কোয়ালিটি-

একটি ব্লগ থেকে কত টাকা আয় হবে তা মূলত নির্ভর করে এর ভিজিটর সংখ্যা কত তার উপর। সুতরাং একটি ব্লগে ভিজিটর যত বেশি ইনকাম তত বেশি। কিন্তু প্রশ্ন আপনার জন্য আপনার ব্লগে বেশি মানুষ আসবে কেন?

উত্তরে হয়তো আপনাকে অবশ্যই কন্টেন্ট কোয়ালিটির কথাই বলতে হবে। তাই তো আপনাকে আবার মনে করিয়ে দিতে চাই আপনাকে কন্টেন্ট কোয়ালিটি এর উপর নজড় দিতে হবে। কন্টেন্ট এর ভাষা এবং এর ভিতরের তথ্য এক্ষেত্রে অনেক বড় ভূমিকা পালন করে। তাই মাথায় রাখবেন কন্টেন্ট কোয়ালিটি ভালো হতে হবে।

পরিশেষে-

ব্লগ লিখে আয় মূল নির্ভর করে আপনি কতটা জোর দিচ্ছেন লেখার উপর তার উপর। কেননা আপনার অনলাইন ইনকামের অনেকাংশই নির্ভর করে আপনার ভিজিটরের উপর। আর ভিজিটর কত হবে তা মূলত নির্ভর করে আপনার কন্টেন্ট কোয়ালিটি এর উপর।

সুতরাং ঘুরে ফিরে কথা এসে থামছে একটা জায়গাতেই আর তা হলো লেখা কেমন সেটা। সুতরাং আপনাকে অবশ্যই আপনার লেখার উপর জোর নজড় দিতে হবে। আর এই নজড় দিতে পারলেই আপনি একজন ভালো ব্লগার হয়ে উঠতে পারবেন। সুতরাং কন্টেন্ট এর উপর আপনাকে নজড় দিতে হবেই। আর তাহলেই এই সাফল্য সম্ভব। আশা করি বুঝতে পেরেছেন। ধন্যবাদ।

Leave a Comment